আজ সোমবার,৮ই অগ্রহায়ণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ,২৩শে নভেম্বর ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

Sample Image of Teeth

হঠাৎ দূর্ঘটনায় দাঁত যদি পড়ে যায় তখন কি করণীয় – জেনে নিন এখনই

দূর্ঘটনায় পড়ে যাওয়া দাঁত নিয়ে যা করবেন


দাঁত ‍খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, দাঁত ছাড়া আমরা কোনো কিছু চিবিয়ে খেতে পারি না। অযত্নের ফলে আমাদের দাঁত অনেক সময় নষ্ট হয়ে যায়। অকালে দাঁত পড়ে যায়। দূর্ঘটনার কারণেও দাঁত পড়ে যায়, ভেঙে যায়।

আমাদের দেশে দাঁত পড়ার কয়েকটি সাধারণ কারন হচ্ছে – দৌড়াতে গিয়ে পড়ে যাওয়া, টিউবওয়েলের হাতল পিছলে পড়ে যাওয়া, বলের আঘাতে, সড়ক দূর্ঘটনা ও কোনোভাবে মুখে আঘাত লাগা। যদি এরকমটা হয়েই যায় তবে বিচলিত হওয়া যাবে না।

পড়ে যাওয়া দাঁতটি সঠিক নিয়মে সংরক্ষণ ও পরবর্তীতে ডাক্তারের শরণাপন্ন হয়ে চিকিৎসা নেয়া হলে আগের দাঁতটিই আবার ব্যবহার করতে পারবেন। এই জন্য হঠাৎ যদি এরকম দুর্ঘটনায় পড়েন এবং আপনার দাঁত পড়ে যায় তাহলে তাৎক্ষনিক যা করবেনঃ


 

১। আহত হয়ে বা দুর্ঘটনায় পড়ে যে দাঁতটি হারিয়েছেন তা খুঁজে বের করুন। সেটি সংরক্ষণ করুন।

২। দাঁতটি খুঁজে পাবার পরে কোনমতেই দাঁতের শিকড়ের গায়ে হাত লাগাবেন না।

৩। দাঁতের উপরের সাদা অংশের নাম হলো ক্রাউন। এই ক্রাউন নামক অংশটাই হাত দিয়ে ধরবেন।

৪। কোনো কারণে যদি দাঁতটিতে ময়লা লেগে যায় বা ধুলো-বালি লাগে তবে একটি বাটিতে নরমাল স্যালাইন অথবা দুধ নিতে হবে। এরপর সেখানে দাঁতটি রেখে পরিষ্কার করতে হবে। তবে ঘষাঘষি করা যাবে না।

৫। তবে কোনো ভাবেই দাঁতে লেগে থাকা ময়লা কোন কিছু দিয়ে মোছা যাবে না।

৬। টিউবওয়েলের পানি বা অন্য কোন সাধারন পানি দিয়েও দাঁতটি পরিষ্কার করা যাবে না বা ধৌত করা যাবে না।

৭। দাঁতটি নিয়মানুযায়ী পরিষ্কার করার পর দাঁতের ক্রাউন নামক অংশটি ধরে মুখের মধ্যে চোয়ালের ঠিক জায়গা মতো হাত দিয়ে বসিয়ে দিতে হবে। এরপর আলতো করে কামড় দিয়ে অনেকক্ষণ ধরে রাখতে হবে।

৮। তবে যদি এই কাজটি নিজে করতে না পারেন কিংবা জটিলতা অনুভব করেন তবে যতো দ্রুত সম্ভব নিকটস্থ হসপিটালে কিংবা ডেন্টাল কেয়ারে যাবেন। তবে এই সময়ে অবশ্যই আপনার পড়ে যাওয়া দাঁতটি আপনার মুখের লালা, নরমাল স্যালাইন কিংবা দুধের মধ্যে রেখে ডাক্তারের কাছে নিয়ে যাবেন।

৯। পড়ে যাওয়া দাঁত যতো বেশিক্ষণ বাইরে থাকবে ততই তার ঠিক থাকার সম্ভাবনা কমতে থাকবে। তাই যতো দ্রুত সম্ভব ডাক্তারের কাছে যাবেন।

১০। সাধারণত এক ঘন্টার মধ্যেই যদি চিকিৎসকের কাছে যাওয়া যায় এবং যদি দাঁতটিকে পূর্বের জায়গায় বসিয়ে দেয়া যায় তবে তা ঠিক হয়ে যাবার সম্ভাবনা ৯৫% থাকে।

১১। চিকিৎসকের কাছে দাঁত লাগানোর পরে আপনাকে বেশ কিছুদিন বিশ্রামে থাকতে হবে। শক্ত কোনো কিছু খাওয়া যাবে না। এই নির্দেশনাগুলো চিকিৎসক আপনাকে দিয়ে দেবেন। নির্দেশনাগুলো মেনে চলা অবশ্যই জরুরী।


 

আজকের আলোচনা এখানেই শেষ করলাম। আশা করি, আলোচনাটি আপনাদের একটু হলেও কাজে লাগবে। নতুন কোনো স্বাস্থ্য তথ্য নিয়ে হাজির হবো আবারও আরেকদিন। সবাই সুস্থ্য, ‍সুন্দর ও ভালো থাকুন। নিজের প্রতি যত্নবান হউন এবং সাবধানে থাকুন।

এই পোস্টটি যদি আপনার ভালো লাগে এবং প্রয়োজনীয় মনে হয় তবে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না যেন।

 

[বিশেষ দ্রষ্টব্য: এই ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্যগুলো কেবল স্বাস্থ্য সেবা সম্বন্ধে জ্ঞান আহরণের জন্য। অনুগ্রহ করে ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে ওষুধ সেবন করুন। ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া ওষুধ সেবনে আপনার শারীরিক বা মানসিক ক্ষতি হতে পারে। প্রয়োজনে, আমাদের সহযোগিতা নিন। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।]

অ্যাডমিনঃ

আপনাদের সাথে রয়েছি আমি মোঃ আজগর আলী। ছোট বেলা থেকেই কম্পিউটারের প্রতি খুব আগ্রহ ছিল। মানুষের সেবা করারও খুব ইচ্ছে। আর তাই গড়ে তুলেছি স্বাস্থ্য সেবা বিষয়ক ওয়েবসাইট সানরাইজ৭১। আশা করছি, আপনারা নিয়মিত এই ওয়েবসাইট ভিজিট করবেন এবং ই-স্বাস্থ্য সেবা গ্রহণ করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     আরও পড়ুন:

সাম্প্রতিক পোস্টসমুহ

আজকের দিন-তারিখ

  • সোমবার (রাত ৯:৪৭)
  • ২৩শে নভেম্বর ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
  • ৭ই রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরি
  • ৮ই অগ্রহায়ণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ (হেমন্তকাল)