আজ সোমবার,৮ই অগ্রহায়ণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ,২৩শে নভেম্বর ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

Sample Image of Human Body

মানবদেহ সম্পর্কিত অতি গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নাবলী – পর্ব ০১

গুরুত্বপূর্ণ কিছু প্রশ্নোত্তর


 

সানরাইজ৭১ এর আজকের পোস্টে সবাইকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। আশা করছি, প্রত্যেকে সুস্থ্য ও সুন্দর আছেন। আজ আমরা জানবো মানবদেহ নিয়ে কতকগুলো গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নোত্তর। প্রশ্নগুলো অতীব গুরুত্বপূর্ণ। এই প্রশ্নগুলোর উত্তর জানাটা সবার জন্য দরকারি; হতে পারে কেউ ডাক্তার, ছাত্র কিংবা সাধারণ ছাত্র। বিশেষ করে মানবদেহ সম্পর্কে যারা জানতে খুব আগ্রহী তাদের জন্য খুবই উপকারি একটি লেখা হিসেবে এটা বিবেচিত হবে। তো আর দেরি নয়, চলুন শুরু করি। অনেকগুলো পর্ব  হবে। আজ প্রথম পর্বঃ

 

১। মানবদেহে মেলানিন নামক পদার্থের প্রধান কাজ কি?

উত্তরঃ মানবদেহকে সূর্যরশ্মির ক্ষতিকর প্রভাব থেকে রক্ষা করা।

২। আমাদের দেহে শক্তির প্রধান মাধ্যম কি?

উত্তরঃ আমাদের দেহে শক্তির প্রধান মাধ্যম হলো শ্বসন।

৩। লিউকোমিয়া রোগের প্রধান কারণ কি?

উত্তরঃ লিউকোমিয়া রোগের প্রধান কারণ হলো রক্তে শ্বেত কণিকার মাত্রা বেড়ে যাওয়া।

৪। রক্ত জমাট বাঁধতে সাহায্য করে কি?

উত্তরঃ রক্ত জমাট বাঁধতে সাহায্য করে অণুচক্রিকা।

৫। মানবদেহের সর্বাপেক্ষা শক্তিশালী ও দীর্ঘ অস্থি কোনটি?

উত্তরঃ মানবদেহের সর্বাপেক্ষা শক্তিশালী ও দীর্ঘ অস্থি হলো উরুর অস্থি।

৬। সিরাম কি বা কাকে বলে?

উত্তরঃ রক্ত জমাট বাঁধার পরে রক্তের হালকা অবশিষ্ট তরল অংশকে সিরাম বলে।

৭। মানবদেহে রক্তের শ্বেত কণিকার ও লোহিত কণিকার অনুপাত কত?

উত্তরঃ মানবদেহে রক্তের শ্বেত কণিকার ও লোহিত কণিকার অনুপাত হলো ১:৫০০।

৮। মাইটোসিস প্রক্রিয়া কোথায় সংগঠিত হয়?

উত্তরঃ মাইটোসিস প্রক্রিয়া সংগঠিত হয় দেহ কোষে।

৯। টেস্টোস্টেরন নামক হরমোন কোথা থেকে নিঃসৃত হয়?

উত্তরঃ টেস্টোস্টেরন নামক হরমোন পুরুষের শুক্রাশয় থেকে নিঃসৃত হয়।

১০। শ্বসন কার্যের সময় দেহ থেকে কি নির্গত হয়?

উত্তরঃ শ্বসন কার্যের সময় দেহ থেকে কার্বন-ডাই-অক্সাইড নির্গত হয়।

১১। মানবদেহে সর্বাপেক্ষা বেশি আছে কোন অ্যাসিড?

উত্তরঃ মানবদেহে বেশি আছে সর্বাপেক্ষা হাইড্রোক্লোরিক অ্যাসিড (HCl)।

১২। লম্বা হওয়ার জন্য সাধারণত কোন হরমোনকে দায়ী করা হয়?

উত্তরঃ লম্বা হওয়ার জন্য সাধারণত গ্রোথ হরমোনকে দায়ী করা হয়।

১৩। অক্সিটোসিন হরমোন কি সংকোচনে সহায়তা করে?

উত্তরঃ অক্সিটোসিন হরমোন জরায়ু সংকোচনে সহায়তা করে।

১৪। রক্ত কি ধরণের কলা? (খাওয়ার কলা নয় কিন্তু!)

উত্তরঃ রক্ত যোজক কলা।

১৫। কোন কোষের বর্ধিত অংশকে এক্সেন বলে?

উত্তরঃ স্নায়ু কোষের বর্ধিত অংশকে এক্সেন বলে।

১৬। মানবদেহে রক্তের চাপ কোথায় সবচেয়ে কম থাকে?

উত্তরঃ মানবদেহে রক্তের চাপ কম থাকে সাধারণত শিরায়।

১৭। মানবদেহের সবচেয়ে বড় গ্রন্থির নাম কি?

উত্তরঃ মানবদেহের সবচেয়ে বড় গ্রন্থির নাম হলো যকৃত।

১৮। মানবদেহের সবচেয়ে বড় অস্থির নাম কি?

উত্তরঃ মানবদেহের সবচেয়ে বড় অস্থির নাম হলো ফিমার।

১৯। শিশুকালে যদি পিটুইটারি গ্রন্থি অপসারণ করা হয় তবে কি হয়?

উত্তরঃ শিশুকালে যদি পিটুইটারি গ্রন্থি অপসারণ করা হয় তবে বামনত্ব হয়।

২০। আমাদের মস্তিষ্ক প্রতি মিনিটে কি পরিমাণ রক্ত সরবরাহ করে?

উত্তরঃ আমাদের মস্তিষ্ক প্রতি মিনিটে প্রায় ৩৫০ মিলিলিটার রক্ত সরবরাহ করে।

২১। পিত্ত বর্ণের জন্য দায়ী কোনটি?

উত্তরঃ পিত্ত বর্ণের জন্য দায়ী হলো বিলিরুবিন।

২২। স্নায়ু কলার প্রতিটি কোষকে কি বলে?

উত্তরঃ স্নায়ু কলার প্রতিটি কোষকে নিউরন বলে।

২৩। যে সন্ধিতে সবচেয়ে বেশি ‍মুভমেন্ট বা নড়াচড়া হয়-

উত্তরঃ সাইনোভিয়াল সন্ধিতে সবচেয়ে বেশি মুভমেন্ট বা নড়াচড়া হয়।

২৪। কোন রস রোগ-জীবানু ধ্বংস করতে সাহায্য করে?

উত্তরঃ পিত্তরস রোগ-জীবানু ধ্বংস করতে সাহায্য করে।

২৫। রক্তে গ্লুকোজের পরিমাণ বাড়ায় কোন হরমোন?

উত্তরঃ গ্লোকাগন নামক হরমোন রক্তে গ্লুকোজের পরিমাণ বাড়ায়।

২৬। মানবদেহের রক্ত সঞ্চালন চক্র আবিষ্কার করেন কে?

উত্তরঃ মানবদেহের রক্ত সঞ্চালন চক্র আবিষ্কার করেন উইলিয়াম হার্ভে।

২৭। একজন স্ত্রী-লোক জননকালে প্রতি মাসে কয়টি ডিম্ব উৎপাদন করে?

উত্তরঃ একজন স্ত্রী-লোক জননকালে মাত্র ১টি ডিম্ব উৎপাদন করে।

২৮। আমাদের দেহে প্রস্রাব প্রস্তুত হয় কোথায়?

উত্তরঃ আমাদের দেহে প্রস্রাব প্রস্তুত হয় কিডনীতে বা মূত্রাশয়ে।

২৯। থাইরয়েড গ্রন্থি থেকে নিঃসৃত প্রাণরসের নাম কি?

উত্তরঃ থাইরয়েড গ্রন্থি থেকে নিঃসৃত প্রাণরসের নাম হলো থাইরক্সিন।

৩০। চোখের মধ্যে সবচেয়ে সংবেদনশীল অংশের নাম কি?

উত্তরঃ চোখের মধ্যে সবচেয়ে সংবেদনশীল অংশের নাম রেটিনা।

 

আজ আর নয়। দেখা হবে পরবর্তী পোস্টে। সেই পর্যন্ত সবাই ভালো থাকুন। করোনা’র এই মহামারী’র সময়ে নিজেকে যতোটা সম্ভব সাবধানে রাখুন। সর্বোপরি আপনার সৃষ্টিকর্তার প্রতি বিশ্বাস রাখুন। সব সময় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকুন।

 

[বিশেষ দ্রষ্টব্য: এই ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্যগুলো কেবল স্বাস্থ্য সেবা সম্বন্ধে জ্ঞান আহরণের জন্য। অনুগ্রহ করে ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে ওষুধ সেবন করুন। ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া ওষুধ সেবনে আপনার শারীরিক বা মানসিক ক্ষতি হতে পারে। প্রয়োজনে, আমাদের সহযোগিতা নিন। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।]

অ্যাডমিনঃ

আপনাদের সাথে রয়েছি আমি মোঃ আজগর আলী। ছোট বেলা থেকেই কম্পিউটারের প্রতি খুব আগ্রহ ছিল। মানুষের সেবা করারও খুব ইচ্ছে। আর তাই গড়ে তুলেছি স্বাস্থ্য সেবা বিষয়ক ওয়েবসাইট সানরাইজ৭১। আশা করছি, আপনারা নিয়মিত এই ওয়েবসাইট ভিজিট করবেন এবং ই-স্বাস্থ্য সেবা গ্রহণ করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     আরও পড়ুন:

সাম্প্রতিক পোস্টসমুহ

আজকের দিন-তারিখ

  • সোমবার (দুপুর ১:১০)
  • ২৩শে নভেম্বর ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
  • ৭ই রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরি
  • ৮ই অগ্রহায়ণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ (হেমন্তকাল)