আজ রবিবার,৭ই অগ্রহায়ণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ,২২শে নভেম্বর ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

Sample Image of Hypo-Thyrodism

হাইপো-থাইরয়েডিজম (Hypo-Thyrodism) রোগের কারণ, লক্ষণ ও চিকিৎসা

হাইপো-থাইরয়েডিজম (Hypo-thyrodism)


 

সানরাইজ৭১ এ সবাইকে স্বাগতম। আশা করছি, সবাই ভালো আছেন। আজ আমরা আলোচনা করবো হাইপো-থাইরয়েডিজম রোগ ও এর চিকিৎসা নিয়ে। তো আর কথা নয় – সরাসরি যাচ্ছি মূল আলোচনায়।

 

হাইপো-থাইরয়েডিজম এর অর্থ থাইরয়েড গ্লাণ্ডের অক্ষমতা। গলার থাইরয়েড গ্লাণ্ডের কাজ কমে গেলে এই রোগ হতে পারে।

শিশুকালে এই ধরণের অক্ষমতা ঘটলে শিশুর চেহারা কুৎসিত এবং বামনাকার হয়। বুদ্ধি ও চেহারা হয় হাবার মত। কথা বলতে পারে না, ঠিক সময়ে দাঁত উঠে না।




গায়ের চামড়া মোটা হয়। মুখ দিয়ে লালা গড়াতে থাকে। হাতের আঙ্গুলগুলো মোটা আকৃতির হয়, মাথার চুলের পরিমাণ ধীরে ধীরে কমে যায় বা কম থাকে।

চিকিৎসা না করলে ২০ থেকে ২৫ বছরেও যৌবনের কোন লক্ষণ দেখা যায় না। শিশুদের থাইরয়েড গ্লাণ্ড বিকাশের এই ত্রুটি বংশানুক্রমিক থাইরয়েডের প্রাথমিক অক্ষমতায় যেমন কারণটি গ্লাণ্ডেই নিহিত।

তেমনি অনেক সময় পিটুইটারী গ্রন্থির ব্যাধির ফলে থাইরয়েড উদ্দীপক হরমোনের ঘাটতিতেও হাইপো-থাইরয়েডিজম দেখা দেয়।

এই রোগে শরীর হয় মেদবহুল, ‍চুল হয় বিরল, মুখে সর্বদাই দেখা যায় আলস্যের চিহৃ ও নিদ্রাভাব। সাধারণত ২৫ বছরের উর্ধ্ব বয়স্কা মহিলা এই ব্যাধিতে ভুগে।

এই রোগে ভুগতে থাকাকালে বিভিন্ন রোগীনি বিভিন্ন ধরণের অভিযোগ নিয়ে আসে। কোন রোগীনি রক্তহীনতা, মাথা ঘুরা, বুক ধড়ফড়ানি, হাত-পা জ্বালা করা, মাসিকের গণ্ডগোল, কেউ ঋতুকালে অধিক রক্তপাত, কেউ মানসিক অস্থিরতায় ভুগে।

রক্তের চাপ স্বাভাবিকের চেয়ে অনেক কম, প্রজনন ক্ষমতা কমে যায়। বয়স্ক মেয়েদেরও মাসিক অকালে বন্ধ হয়ে যায়।

 

যে ধরণের লক্ষণের সম্মুখীণ হতে হয়ঃ

১। আক্রান্ত ব্যক্তির চেহারা ফ্যাকাশে হয়ে যায়।

২। হাত-পায়ের চামড়া খসখসে বা ফুলাফুলা হয়ে যায়।

৩। রক্তহীনতা ও কোষ্ঠকাঠিন্য হতে পারে।




৪। ক্ষুধা কম হয়।

৫। শ্রবণ শক্তি কমে যেতে পারে।

৬। স্ত্রী লোকের অনিয়মিত স্রাব হয় এবং স্রাবে অধিক রক্তক্ষরণ হতে পারে।

৭। পুরুষ লোকের যৌন ক্ষমতা হ্রাস পায়।

৮। সর্ব শরীর কিংবা হাত-পায়ে ব্যথা হতে পারে।

 

চিকিৎসাঃ

১। কারণ অনুসারে চিকিৎসা করতে হবে।

২। থাইরয়েড গ্রন্থির কাজ কমে গেলেঃ Tab Thyroid ½ or 1 g.

মাত্রাঃ সূচনায় ½ গ্রেন করে দিনে ৩ বার। ব্যাধির গুরুত্ব অনুসারে ১ সপ্তাহে ½ গ্রেন বৃদ্ধি করা যায়। সংরক্ষণ মাত্রা সপ্তাহে ½ দিন।




অথবা,

জটিলতাহীন রোগীকে চিকিৎসায়ঃ Tab Thyroxine.

মাত্রাঃ দৈনিক ০.০৫ মিগ্রা মাত্রায় শুরু করে তিন সপ্তাহে দৈনিক ০.১ মিগ্রা মাত্রা উঠানো যায়। প্রয়োজনে আরও ৬ সপ্তাহে ০.২ মাত্রায় উঠানোর প্রয়োজন হতে পারে।

১৪ দিন বা তারও অধিক দিনের ব্যবধানে মাত্রা বাড়াতে হয় তবে ভাল ফল পেতে দেরী হয়। রোগের লক্ষণের উপশম হলে এবং রোগী ভালো বোধ করলেও ওষুধ ছেড়ে দিতে নেই।

অনির্দিষ্ট কাল পর্যন্ত নিয়মিত চিকিৎসা চালিয়ে যেতে হয়। হৃদ মাংসপেশীতে রক্ত চলাচলে বিঘ্ন আছে এমন রোগীর জন্য দৈনিক মাত্রা ০.০৫ এবং ০.১ মিগ্রা এর মধ্যে রাখা ভালো। এর সাথে নিম্নোক্ত ওষুধগুলো ব্যবহার করা উত্তম।

৩। Propanolol যুক্ত ওষুধঃ Tab Propanol 10mg or, Tab Indever 10 mg or, Tab Adlock 10 mg.

মাত্রাঃ ১টি করে বড়ি দিনে ২ অথবা ৩ বার।

৪। রক্তশুন্যতার জন্যঃ Cap Haemodin or, Cap Femaron or, Cap Ferate Plus or, Cap Feridex Plus or, Cap Femart.

মাত্রাঃ সকালে ১টি ও রাত্রে ১টি ক্যাপসুল সেব্য।

অথবা,

Tab Aristofol-Fe or, Tab Falfetab or, Tab Premaferon.

মাত্রাঃ ১টি করে দিনে ২ অথবা ৩ বার।

৫। অবসাদ ও দুঃশ্চিন্তার জন্যঃ Tab Permival 10mg or, Tab Norzine 10 mg.




মাত্রাঃ ১টি করে দিনে ২ অথবা ৩ বার।

 

পথ্য ও আনুষঙ্গিক ব্যবস্থাঃ

১। আয়োডিনযুক্ত লবণ খাওয়া ভালো।

২। স্বাভাবিক সকল খাবার খাওয়া যাবে।

৩। অভিজ্ঞ চিকিৎসকের নিকট চিকিৎসা নেয়া ভালো।


আজ এখানেই শেষ করছি। ফিরে আসবো অন্য দিন নতুন কোনো স্বাস্থ্য টিপস নিয়ে। সবাই সুস্থ্য, সুন্দর ও ভালো থাকুন। নিজের প্রতি যত্নবান হউন এবং সাবধানে থাকুন। করোনাকে ভয় নয় – সাবধানতা ও সচেতনতাই যথেষ্ট।

এই পোস্টটি যদি আপনার ভালো লাগে এবং প্রয়োজনীয় মনে হয় তবে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না যেন।

 

[বিশেষ দ্রষ্টব্য: এই ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্যগুলো কেবল স্বাস্থ্য সেবা সম্বন্ধে জ্ঞান আহরণের জন্য। অনুগ্রহ করে ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে ওষুধ সেবন করুন। ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া ওষুধ সেবনে আপনার শারীরিক বা মানসিক ক্ষতি হতে পারে। প্রয়োজনে, আমাদের সহযোগিতা নিন। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।]

অ্যাডমিনঃ

আপনাদের সাথে রয়েছি আমি মোঃ আজগর আলী। ছোট বেলা থেকেই কম্পিউটারের প্রতি খুব আগ্রহ ছিল। মানুষের সেবা করারও খুব ইচ্ছে। আর তাই গড়ে তুলেছি স্বাস্থ্য সেবা বিষয়ক ওয়েবসাইট সানরাইজ৭১। আশা করছি, আপনারা নিয়মিত এই ওয়েবসাইট ভিজিট করবেন এবং ই-স্বাস্থ্য সেবা গ্রহণ করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     আরও পড়ুন:

সাম্প্রতিক পোস্টসমুহ

আজকের দিন-তারিখ

  • রবিবার (দুপুর ২:৩৬)
  • ২২শে নভেম্বর ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
  • ৬ই রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরি
  • ৭ই অগ্রহায়ণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ (হেমন্তকাল)