আজ শুক্রবার,১০ই বৈশাখ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ,২৩শে এপ্রিল ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

চোখে অঞ্জনী হলে যা করবেন

অঞ্জনি (আঞ্জিনা)

 

 

রোগ বিবরন : চোখের উপরের পাতায় বা নীচের পাতায় বেদনাযুক্ত ছোট স্ফোটকের মত হয় তাহাকে অঞ্জনি বলে। সময় সময় স্ফোটকের ন্যায় পাকিয়া পুঁজ নির্গত হয়। ঠান্ডা লাগা বা দুর্বলতা প্রভূতি কারনে এই পীড়া হতে পারে।

বেলেডোনা (Belladona) : ঠান্ডা বাতাস অপছন্দ, শীত কাতর রোগীদের অঞ্জনিতে ইহা উপকারী। অঞ্জনি স্থানটি টকটকে লাল। তাহাতে অত্যন্ত চিরিক মারা দপদপানি ব্যথা, গরম, মাঝে মাঝে জ্বলে, ইহাতে বেলাডোনা অব্যর্থ।

সেবন বিধি : শক্তি 3x 6 বা 30 তিন ঘন্টা অন্তর।

হিপার সালফ (Heper Sulph) : ঠান্ডা বাতাস অসহ্য, শীত কাতর, কি শীত কি গ্রীষ্ম উভয় ঋতুতে আপাদমস্তক ঢাকিয়া রাখে। গরমের দিনে প্রচুর ঘাম হয়। মেজাজ খুবই রাগী। এই ধাতুর রোগীদের এই ঔষধ অধিক ফলদায়ক। অঞ্জনিতে স্পর্শ কাতরতা ব্যথা হাত ছোঁয়ান তো দুরের কথা ঠান্ডা বাতাস লাগাও সহ্য হয় না। ইহাতে হিপার অব্যর্থ

সেবন বিধি : শক্তি 30 বা 200 দিনে ৩ বার ।

ক্যালকেরিয়া পিক্রেটাম (Calcarea Picratum) : চোখের পাতার অঞ্জনিতে এই ঔষধ ব্যবহার করিয়া যথেষ্ট উপকার হইতে দেখিয়াছি ।ইহার 3x বা 3 দিন ঘন্টা অন্তর সেবনে শ্রীঘ্র পুঁজ উৎপাদিত হইয়া ফাটিয়া যায়। 30 বা 200 দিনে ২ বার সেবনে অঞ্জনি বসিয়া যায়।

পালসেটিলা (Pulsatilla): নম্র স্বভাব, কোমল মন, অল্প কথায় মনে ব্যথা, খোলা বাতাস পাইবার আকাঙ্খা, গরম কাতর এই ধাতুর রোগীদের চোখের নীচের পাতার অঞ্জনিতে পালসেটিলা মহৎ কার্যকারী ঔষধ।

সেবন বিধি : শক্তি 30 বা 200 দিনে ৩ মাত্রা। পালসেটিলা অঞ্জনি রোগের প্রতিষেধক।

ষ্ট্যাফিসেগ্রিয়া (Staphysagria): অতিশয় উত্তেজিত, বদরাগী, অভিমানী, মনের দুঃখ মনে চাপিয়া রাখে বাহিরে প্রকাশ না করিয়া মনোঃ কষ্টে ভোগে, শীত কাতর রোগীদের জিঙ্গাসায় জানিতে পারিলেন চোখের পাতায় পুনঃ পুনঃ অঞ্জনি উঠে। কোন সময় পাকিয়া পুঁজ ঝড়ে আবার কোন সময় না ফাটিয়া শক্ত টিবলি হইয়া থাকে পাকেও না বসেও না।ইহাতে ট্রাফিসেগ্রিয়া উত্তম ঔষধ।

সেবন বিধি : শক্তি 30 বা 200 দিনে ২ বার । পুরাতন পীড়ায় 1m সকালে বিকাল দুই মাত্রা প্রয়োজনে আরো উচ্চ শক্তি।

বাইওকেমিক চিকিৎসা
ফেরাম ফস (Farrum Phos): অঞ্জনির প্রথমাবস্থায় আক্রান্ত স্থান লাল চিড়িক মারা ব্যথা হইলে ফেরাম ফস কার্যকারী ‍দ্বিতীয়াবস্থায় উক্ত ঔষধ সহিত ক্যালি মিউর পর্যায় ক্রমে সেবনে উক্ত পীড়া আরোগ্য হয়।

সেবন বিধি : শক্তি 6x ২-৪ বড়ি ১ মাত্রা (বয়স অনুপাতে) দিনে ৪ বার।

ক্যালকেরিয়া ফ্লোর (Calcarea Fluor): অঞ্জনির স্থান শক্ত টিবলির মত হইয়া থাকিলে এই ঔষধ কার্যকারী।

সেবন বিধি : শক্তি 6x বা 12x হইতে আরো উচ্চ শক্তি ২-৪ বড়ি এক মাত্রা (বয়স অনুপাতে) সকাল বিকাল দিনে ২বার।

পথ্য ও আনুষাঙ্গিক ব্যাবস্থা
অঞ্জনি স্থানে গরম জলের সেক দেওয়া ভাল। তৈল বা ঠান্ডা লাগানো অনুচিত। মাংস, ডিম, টক, খাওয়া নিষিদ্ধ।

রোগী বিবরন : মোঃ দুলাল মিয়া, বয়স ১৭-১৮ বৎসর, মেজাজ খিট খিটে, ভাড়ি অভিমানী, শীত কাতর, বদরাগী উভয় চোখের অঞ্জনি পাকে ও পুঁজ পড়ে। এই ভাবে কয়েকবার দেখা যায়। পড়ে ডান চোখের উপরের পাতায় মটর কলাইর চেয়ে একটু বড় টিবলি হইয়া থাকে। বসেও না পাকেও না। ষ্ট্যাফিসেগ্রিয়া 200 শক্তি সকাল বিকাল ২ মাত্রা চারদিন দেওয়ার পর বিশেষ কোন উপকার বুঝিতে না পারিয়া ১ সপ্তাহ পর 1m সকাল বিকাল দুই মাত্রায় সেবন করিতে দেই। দুই সপ্তাহের মধ্যে টিবলিটি অদৃশ্য হইয়া যায়।

সুত্রঃ ইন্টারনেট

অ্যাডমিনঃ

আপনাদের সাথে রয়েছি আমি মোঃ আজগর আলী। ছোট বেলা থেকেই কম্পিউটারের প্রতি খুব আগ্রহ ছিল। মানুষের সেবা করারও খুব ইচ্ছে। আর তাই গড়ে তুলেছি স্বাস্থ্য সেবা বিষয়ক ওয়েবসাইট সানরাইজ৭১। আশা করছি, আপনারা নিয়মিত এই ওয়েবসাইট ভিজিট করবেন এবং ই-স্বাস্থ্য সেবা গ্রহণ করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     আরও পড়ুন:

Subscribe: Dinajpur School

সাম্প্রতিক পোস্টসমুহ

আজকের দিন-তারিখ

  • শুক্রবার (দুপুর ১:১২)
  • ২৩শে এপ্রিল ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
  • ১০ই রমজান ১৪৪২ হিজরি
  • ১০ই বৈশাখ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ (গ্রীষ্মকাল)