আজ বুধবার,১১ই কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ,২৭শে অক্টোবর ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ম্যালিরিয়া জ্বর (বিভিন্ন জ্বসহমূহ)  হওয়ার কারণ ও হোমিও চিকিৎসা।

ম্যালিরিয়া জ্বর (বিভিন্ন জ্বসহমূহ)
সানরাইজ৭১ এ সবাইকে স্বাগতম। আশা করছি, সবাই ভালো আছেন। আজ আমরা আলোচনা করবো ম্যালিরিয়া জ্বর (বিভিন্ন জ্বসহমূহ)  হওয়ার কারণ ও হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা। সবার জানা জরুরী !তো আর কথা নয় – সরাসরি যাচ্ছি মূল আলোচনায়।
রোগ বিবরন : অতিশয় উত্তাপ বা অতিরিক্ত ঠান্ডা লাগা শারীরিক ও মানসিক পরিশ্রম ।অপরিমিত আহার বিহার অর্ত্রে কৃমি রাত্রি জাগরন ঋতু পরিবর্তন ঘর্ম জলে ভিজা ভয় পাওয়া প্রভূতি কারনে জ্বর হইতে পারে ।
চিকিৎসা
একোনইট ন্যাপ (Aconite Nap) : হঠাৎ জ্বরের আক্রমন ঘর্মহীন অবিমানি ছটফটানি প্রবল পিপাসা অদিক পরিমানে ঘন ঘন জল পান ।বারে বারে এপাশ ওপাশ করা মৃত্যু ভয় ইত্যাদি লক্ষনে ইহা উপকারী ।
সেবন বিধি : শক্তি 1x বা দুই ঘন্টা অন্তর ।
বেলেডোলানা (Belledona) : চোখ মখ লাল প্রচন্ড মাথা ব্যথার ভীষন জর গা অত্যন্ত গরম একটু ভাব আসিলেই চমকাইয়া উঠে ।স্বল্প বিরাম জ্বর মধ্যে গরম ঘাম ।
সেবন বিধি : শক্তি 3x বা 6 দুই মাত্রা ।
জেলসিমিয়ম (Gelsemium) : সকল প্রকার জ্বরে রোগী নিশ্চুপ হিইয়া পড়িয়া পড়িয়া থাকে ।ডাকিলে সাড়া দেয় না ।পায়ের তলা ঠান্ডা মাথা গরম অত্যন্ত দুর্বল তন্দ্রাচ্ছন্ন হইয়া পড়িয়া থাকে ।মাঝে মাঝে চমকাইয়া উঠে ।জল পিপাসা বড় একটা থাকে না ।
সেবন বিধি : শক্তি 3x বা দুই ঘন্টা অন্তর ।
ব্রায়োনিয়া(Bryonia Alb) : অবিরাম সবিয়াম যে কোন প্রকারের জ্বরেই হোক লক্ষন মিলিলে ব্রায়োনিয়া প্রয়োগ করিতে চায় না ।নড়াচড়ায় তাহার সকল যন্ত্রনায় বৃদ্ধি পান মাঝে মাঝে প্রলাপে বাড়ী যাইবার কথা বলে ।
সেবন বিধি : শক্তি 30 বা 200 চার ঘন্টা অন্তর ।
ইপিকাক (Ipecac) : যে কোন জ্বরের সহিত বমি বা বমি ভাব অথাৎ গা বমি বমি জ্বর লক্ষন মিলিলে আর্সেনিক প্রয়োগ করা যায় ।গাত্র দাহ ছটফটানি মৃত্যু ভয় অবসাদ অল্প পরিামানে ঘন ঘন জল পান পায়খানার ভীষন দুর্গন্ধ ।দিবা বা রাত্রি ১২ টা হইতে ২ টার মধ্যে জ্বরের বৃদ্ধিতে ইহা অব্যর্থ ।
সেবন বিধি : শক্তি 200 সকাল বিকাল দিনে দুই মাত্রা ।
এরাম ট্রাই (Arum Tri) : টাইফয়েড জ্বরে রোগী নাক ও ঠোট খুটিতে দেখিলে এই ঔষধটি স্বরন করিবেন ।এই ঔষধ সেবনে জ্বর সম্পূর্ণ আরোগ্য না হইলে ও লক্ষন অনুসারে অন্য ঔষধ ব্যবস্থা শিঘ্রই উপকার হয় ।
সেবন বিধি : শক্তি 6 বা 30 তিন ঘণ্টা অন্তর ।
সিনা (Cina) : ক্রিমিগ্রস্ত শিশুদের জ্বর প্রায়ই বিকাল বা সন্ধ্যায় আসে ।খিট খিটে মেজাজ ঘুমের ঘোরের চিৎকার দিয়া উঠে ।দাত কাটে নাক খোটে ঘ্যান ঘ্যান প্যান প্যান করে ।
সেবন বিধি : শীক্ত 30 বা 200 তিন ঘন্টা অন্তর ।
চিনিনম আর্স (Chinium Ars) : সর্বদাই শীত শীত স্বভাব ।জ্বরের পূর্বে ঘন ঘন হাই উঠে ।জ্বর পত্যহ বা একদিন অন্তর আসে ।জ্বর ত্যাগ কালে অল্প গর্ম হয় ।জ্বরেই উপকার হয় ।
সেবন বিধি : শক্তি 30 বা 200 সকাল বিকাল দুই মাত্রা অন্তর ।
বাইকেমিক চিকিৎসা
ফেরাম ফস (Ferrum Mur) : সর্ব প্রকার জ্বরের প্রথমবস্থায় ফরাম ফস উৎকৃষ্ট ঔষধ ।কোষ্টবদ্ধ জিহ্বায় সাদা প্রলেপ শরীর বেদনা ইত্যাদি লক্ষনে উক্ত ঔষধের হইতে থাকে ।শীত করিয়া কম্প দিয়া বলা ১০ টা ১১ টা কিংবা বিকালে জ্বর আসে ।বিম্ন ঠোটের মধ্যে ব্যাগ সেবন করিতে হয় ।
সেবন বিধি : শক্তি 6x ১-৪ বড়ি এক ঘন্টা অন্তর ।
নেট্রাম মিউর (Narum Mur) : জ্বর আসিবার পূর্বে বিকালে জ্বর আসে ।নিম্ন ঠোটের মধ্যে থাকে ।শীত প্রলেপ ভাগ ফাটা ফাটা জ্বর ঠুটো ।
সেবন বিধি : শক্তি 12x ২-৪ বড়ি এক ঘন্টা অন্তর ।
ক্যালি সালফ (Kali Sulph) : হাত পা জ্বালার সহিত ঘর্ম বিহীন জ্বর ।জ্বর সন্ধ্যায় বৃদ্দিতে ইহা অমোঘ ।
সেবন বিধি : শক্তি 6x বা 12x ২-৪ বড়ি এক মাত্রা দিনে তিন বার ।
ক্যালি ফস (Kali Sulph) : টাইয়েড জ্বরে রোগী অত্যন্ত দুর্বল অনিদ্রা পেট ফাপা বাহ্যে প্রস্রাবে অত্যন্ত দুর্গন্ধ জিহ্বা শুস্ক মুখে দুর্গন্ধ ইত্যাদি লক্ষনে ইহা অব্যর্থ ।
সেবন বিধি : শক্তি 6x বা 12x ১-৪ বড়ি এক ঘন্টা অন্তর বয়স অনুপাতে দিনে তিন বার ।
নেট্রাম সালফ (Natrum Sulph) : ঠান্ডা আবহাওয়ায় কিংবা বর্ষা কালে জলে ভিজিয়া অবিরাম জ্বরে শরীরের টাটানী ব্যথায় ইহা উপকারী ।
পথ্য আনুষাঙ্গিক ব্যবস্থা
জ্বর কালীন রোগীকে অধিক নড়াচাড়া বা স্থানান্তর যাইতে দেওয়া উচিত নয় ।পেটে গন্ডগোল থাকিলে জল বার্লি নড়াচড়া জল সটি দেওয়া ভাল ।কোষ্ঠ বদ্ধ থাকিলে দুধ দাও বিভিন্ন ফলের রস দেওয়া পারে ।জ্বর সম্পূর্ণ ত্যাগ হইয়া গেলে ভাত মাছ দুধ মাংস ইত্যাদি দেওয়া যায় ।
রোগী বিবরন : শওকত আলী বয়স ৪৫ বৎসর দরি নবীপুর নরসিংদী ।১৯৯৭ সনে তিনি চলে যান বান্দরবহন জিলার কোন গ্রামে ।যেখানে বসবারত অবস্থায় ম্যালেরিয়া জ্বরে আক্রান্তর হয় ।স্থানীয় চিকিৎসায় আরোগ্য হইতে না পারিয়া নরসিংদী আমার নিকট চিকিৎসার জন্য আসে ।জ্বর কোন দিন সকালে দুপুরে আবার কোন দিন বিকালে ও আসে ।
জ্বর আসার সময় অত্যন্ত শীত বোধ এবং শরীর কাপ দিয়া জ্বর আসে ।পরে ক্রমশ জ্বর বৃদ্ধি পাইয়া শরীর অত্যন্ত গরম হয় । গায়ে জ্বালা হইতে থাকে ।শেষে ঘাম দিয়া ছাড়িয়া যায় ।যথেষ্ট জল পিপাসা হয় ।ইত্যাদি লক্ষনে আমি তাহাকে চিনিনিয়ম সালফ 200 শক্তি তিন অন্তর বিজ্বরবস্থায় সেবন করিতে দিলে ৩/৪ দিনে মধ্যে জ্বর ছড়িয়া যায় ।
https://www.sunrise71.com/archives/4660
[বিশেষ দ্রষ্টব্য:এই ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্যগুলো কেবল স্বাস্থ্য সেবা সম্বন্ধে জ্ঞান আহরণের জন্য। অনুগ্রহ করে ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে ওষুধ সেবন করুন। ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া ওষুধ সেবনে আপনার শারিরীক বা মানসিক ক্ষতি হতে পারে। প্রয়োজনে, আমাদের সহযোগীতা নিন। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।]

অ্যাডমিন বার্তাঃ

আপনাদের সাথে রয়েছি আমি মোঃ জাহাঙ্গীর বিন সফিকুল। ছোট বেলা থেকেই কম্পিউটারের প্রতি খুব আগ্রহ ছিল। মানুষের সেবা করারও খুব ইচ্ছে। আর তাই গড়ে তুলেছি স্বাস্থ্য সেবা বিষয়ক ওয়েবসাইট সানরাইজ৭১। আশা করছি, আপনারা নিয়মিত এই ওয়েবসাইট ভিজিট করবেন এবং ই-স্বাস্থ্য সেবা গ্রহণ করবেন।

One response to “ম্যালিরিয়া জ্বর (বিভিন্ন জ্বসহমূহ)  হওয়ার কারণ ও হোমিও চিকিৎসা।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     আরও পড়ুন:

ইমেইলে পোস্ট পেতে সাবস্ক্রাইব করুন:

আজকের দিন-তারিখ

  • বুধবার (সকাল ৬:৩৬)
  • ২৭শে অক্টোবর ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
  • ২০শে রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিজরি
  • ১১ই কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ (হেমন্তকাল)
জাতীয় হেল্প লাইন