আজ বুধবার,১১ই কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ,২৭শে অক্টোবর ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ব্যারাইটা কার্ব একটি দীর্ঘকাল

ব্যারাইটা কার্ব একটি দীর্ঘকাল কার্যকরী ঔষধ।

ব্যারাইটা কার্ব একটি দীর্ঘকাল কার্যকরী ঔষধ।
সানরাইজ৭১ এ সবাইকে স্বাগতম। আশা করছি, সবাই ভালো আছেন। আজ আমরা আলোচনা করবো ব্যারাইটা কার্ব একটি দীর্ঘকাল কার্যকরী ঔষধ। সবার জানা জরুরী !তো আর কথা নয় – সরাসরি যাচ্ছি মূল আলোচনায়।
ব্যারাইটা কার্ব একটি দীর্ঘকাল কার্যকরী ঔষধ। আমাদের হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা জগতে ধাতুগত দোষ সংশোধনকারী যত ঔষধ আছে, ইহা তাহাদের মধ্যে অন্যতম। এটি একটি পলিক্রেষ্ট ঔষধ।
উৎসঃ খনিজ।
প্রুভারঃ ডা. হানেমান ১৮২৮ সালে, ডা. নেনিং, হার্টলব,
রুমেল।
কাতরতাঃ প্রথম শ্রেনীর শীতকাতর এবং তৃতীয় শ্রেনীর
গরমকাতর।
মায়াজমঃ সোরিক, সাইকোটিক, টিউবারকুলার।
পার্শ্বঃ ডানপার্শ্বে, বামপার্শ্বে। উপরে বামপার্শ্বে এবং নিচে
ডানপার্শ্বে। ডানপার্শ্ব হতে বামপার্শ্ব।
উপযোগীতাঃ প্রথম ও দ্বিতীয় অবস্থার অসুখে অর্থাৎ
শৈশবে ও বার্দ্ধক্যের রোগে বিশেষভাবে
প্রযোজ্য।
নির্দেশক / চরিত্রগত লক্ষণঃ
১. শিশু মানসিক ও দৈহিকভাবে দুর্বল।
২. বেঁটেখাটো, হিষ্টিরিয়াগ্রস্ত স্ত্রীলোক ও বয়স্কা অবিবাহিতা
যারা – ঋতুস্রাব খুব অল্প, দেহে জৈবিক তাপ কম, সব
সময়ই ঠান্ডা ও শীতবোধ।
৩. বৃদ্ধ যাদের অপুষ্টি ও ক্ষয় রোগে স্বাস্থ্য ভেঙ্গে গেছে,
আবার গ্ল্যান্ড সংক্রান্ত রোগে যদি মোটা হয়ে যায় বা
গিঁটবাত রোগগ্রস্ত তাদের উপযোগী।
৪. বয়স্কদের অসুখ, প্রষ্টেট গ্রন্থি বা অণ্ডকোষ বেড়ে যায় বা
শক্ত হয়, সাথে মানসিক ও শারীরিক দুর্বলতা।
৫. বৃদ্ধদের সন্ন্যাস রোগ হওয়ার প্রবণতা, মাথা ব্যথা,
ছেলেমানুষীভাব।
৬. যাদের প্রায়ই গলায় ঘা হয়, একটুতেই সর্দি লাগে বা
একটু ঠাণ্ডা লাগলেই প্রতিবার টনসিল প্রদাহ হয়, তা
পেকে পুঁজ হয়।
৭. তরল দ্রব্য ছাড়া কিছুই গিলতে পারে না।
৮. অর্শবলি, প্রতিবার প্রস্রাবের সময় বাইরে বেরিয়ে আসে।
৯. সোরাধাতুর শিশুদের পুরান কাশি, টনসিল বাড়ে বা
আলজিভ বড় হয় বা সামান্য ঠাণ্ডাতেই বেড়ে যায়।
১০. গ্রন্থিগুলো বিশেষতঃ ঘাড়ে ও কুঁচকিতে গ্রন্থি ফোলে ও
শক্ত হয়ে যায় বা পুঁজ হবার মত হয়।
১১. পায়ের ঘামে দুর্গন্ধ – পায়ের আঙ্গুল ও পায়ের তলায়
ক্ষতভাব। পায়ের ঘাম বন্ধ হয়ে পরবর্তীকালে গলায়
বিভিন্ন অসুখ হলে।
১২. ব্যারাইটার গতি ধীর ও মৃদু।
১৩. পেট ফোলা থাকে, বারে বারে পেটে শূলব্যথা হয়, মুখে
ফোলাফোলাভাব কিন্তু সারাদেহ শুকিয়ে যায়।
মানসিক লক্ষণঃ
১. প্রচণ্ড লাজুক, ভীরুতা, আত্মবিশ্বাসের অভাব।
২. শিশু অপরিচিত ব্যক্তি দর্শন করিলে ঘরের ভিতর অথবা কখন বা চেয়ারের তলায় নিজেকে লুকায়।
৩. শিশু মায়ের পশ্চাতে লুকায়িত থাকে।
৪. বৃদ্ধদের শিশুসুলভ ব্যবহার। স্মৃতিশক্তি দুর্বল।
বৃদ্ধিঃ রোগের কথা চিন্তা করলে, যেদিকে ব্যথা সে দিকে
শুলে, খাওয়ার পর, আক্রান্ত অঙ্গ ধুলে।
হ্রাসঃ অন্যমনস্ক হইয়া থাকিলে তাহার পীড়া হইতে, কাশি
উপুর হইয়া শয়ন করিলে।
সতর্কতাঃ
ডা. ফ্যারিংটন বলেন – শৈষ্মিক হাঁপানি বা হাঁপানির সহিত ফুসফুসে বায়ু জমা থাকলে ইহা কখনই দিবেন না।
ডা. মো. জুয়েল রানা।
প্রভাষক,
ক্রনিক ডিজিজ ও মেটিরিয়া মেডিকা (মেডিসিন) বিভাগ
ঢাকা হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজ, ধামরাই।
চেম্বার — আদর্শ হোমিও হল।
মতিরমোড়, কোটালীপাড়া, গোপালগঞ্জ।
মোবাইল নাম্বার – 01727641525
[বিশেষ দ্রষ্টব্য:এই ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্যগুলো কেবল স্বাস্থ্য সেবা সম্বন্ধে জ্ঞান আহরণের জন্য। অনুগ্রহ করে ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে ওষুধ সেবন করুন। ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া ওষুধ সেবনে আপনার শারিরীক বা মানসিক ক্ষতি হতে পারে। প্রয়োজনে, আমাদের সহযোগীতা নিন। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।]

অ্যাডমিন বার্তাঃ

আপনাদের সাথে রয়েছি আমি মোঃ জাহাঙ্গীর বিন সফিকুল। ছোট বেলা থেকেই কম্পিউটারের প্রতি খুব আগ্রহ ছিল। মানুষের সেবা করারও খুব ইচ্ছে। আর তাই গড়ে তুলেছি স্বাস্থ্য সেবা বিষয়ক ওয়েবসাইট সানরাইজ৭১। আশা করছি, আপনারা নিয়মিত এই ওয়েবসাইট ভিজিট করবেন এবং ই-স্বাস্থ্য সেবা গ্রহণ করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     আরও পড়ুন:

ইমেইলে পোস্ট পেতে সাবস্ক্রাইব করুন:

আজকের দিন-তারিখ

  • বুধবার (সকাল ৭:৪৫)
  • ২৭শে অক্টোবর ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
  • ২০শে রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিজরি
  • ১১ই কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ (হেমন্তকাল)
জাতীয় হেল্প লাইন