আজ সোমবার,৮ই অগ্রহায়ণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ,২৩শে নভেম্বর ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

www.sunrise71.com

প্রগতি হোমিও ল্যাবোরেটরিস এর কিছু প্রয়োজনীয় ওষুধ ও সেগুলোর কাজ- পর্ব ০১

প্রগতি হোমিও ল্যাবোরেটরিস এর ওষুধ (বিজ্ঞাপন নয়)


ভূমিকাঃ প্রগতি বাংলাদেশের সর্বাধুনিক ও প্রতিশ্রতিশীল হোমিও ও ইউনানী ওষুধ উৎপাদন ও বিপননকারী প্রতিষ্ঠান। বাংলাদেশের হোমিও ও ইউনানী ওষুধ শিল্পে আধুনিকায়নে প্রগতি অগ্রগামী।

এর উন্নত কাঁচামাল ও উৎপাদনের সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারে উৎপাদিত ওষুধ সমুহ বিশ্বমানের। আধুনিক মেশিনারীজের মাধ্যমে G.M.P ও S.O.P অনুযায়ী কোন প্রকার হাতের স্পর্শ ছাড়াই ওষুধ উৎপাদন হয়ে থাকে এবং প্রত্যেকটি পর্যায়ে কঠোর মান নিয়ন্ত্রণ করা হয়।

এই কোম্পানীর রয়েছে আধুনিক উৎপাদন, মান নিয়ন্ত্রণ ও রিসার্চ এন্ড ডেভেলপমেন্ট বিভাগ। মান নিয়ন্ত্রণ বিভাগ আধুনিক মেশিনারীজে সজ্জিত।

কাঁচামাল বাছাই থেকে শুরু করে উৎপাদিত ওষুধের গুণগত মান নিয়ন্ত্রণে ব্যবহার করা হয় অত্যাধুনিক সব মেশিনারীজ।

রিসার্চ এন্ড ডেভেলপমেন্ট বিভাগ উৎপাদিত ওষুধের গুণগত মান বৃদ্ধি ও নতুন নতুন ওষুধ উৎপাদন এর লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে।


 

এবার চলুন সিরাপ ও অন্যান্য ওষুধগুলো সম্পর্কে জেনে নিইঃ

  • ভিটামিক্স-Vitamix (১০০ মিলি সিরাপ): শিশুদের ক্ষেত্রে ইহা স্নায়ু, মস্তিষ্ক ও হৃৎপিন্ডের স্বাভাবিক কার্যক্রমে, অরুচি, ভিটামিন ও খনিজ উপাদানের ঘাটতিতে কার্যকর এবং সর্বদা পুষ্টিসাধক ও শরীর বর্ধক হিসেবে কাজ করে।
  • টনসিলিনাম-Tonsilinum (৩০ মিলি ড্রপ): টনসিলের প্রদাহ, গলা ব্যথা এবং মাথা ব্যথা সহ জ্বরে কার্যকর।
  • স্যাংগুনেরিয়া নাইট ৩x-Sangunaria Nit 3x (৩০ মিলি ড্রপ): নাসিকার মাংস বৃদ্ধি, নাসিকা বন্ধ থাকা, নাসিকার ভিতর জ্বালাপোড়া, ঘুমের সময় অস্বস্তি এবং মাথা ব্যথায় কার্যকর।
  • স্যানটক্স-Santox (ব্লিষ্টার প্যাকে ৩০ টি ট্যাবলেট): কৃমিনাষক ওষুধ।
  • স্যাবাল সেরুলেটা ২x-Sabal Serrulata 2x (৩০ মিলি ড্রপ): প্রস্টেট গ্লান্ডের বৃদ্ধি, প্রস্টেট গ্লান্ড ক্যান্সার, প্রদাহ ও অতিরিক্ত নিঃসরণ সহ মূত্র তৈরী হয়নি অথচ প্রস্রাবের বেগ ইত্যাদি রোগের লক্ষণে কার্যকর।
  • রিউমা কিউর-Rheuma Cure (৩০ মিলি ড্রপ): বাত, গেঁটে বাত, বাত জ্বর, বাতের ব্যথা, গিরায় গিরায় ব্যথা এবং ঠান্ডা জ্বরে অস্থিরতায় কার্যকর।
  • পেইন রিলিফ-Pain Relief (১০ গ্রাম ওয়েন্টমেন্ট): বাত ব্যথা সহ অন্যান্য আঘাতজনিত ব্যথায় বিশেষভাবে কার্যকর।
  • পালসিটিলা-Pulsatilla (১০০ মিলি সিরাপ): অনিয়মিত ঋতুস্রাব, ব্যথাযুক্ত ঋতুস্রাব, বিলম্বিত ঋতুস্রাব, শ্বেতপ্রদর এবং জরায়ুর ব্যথায় কার্যকর।
  • পাইল্স কিউর-Piles Cure (১০ গ্রাম ওয়েন্টমেন্ট): মলদ্বারে ক্ষত, রক্তপড়া, ফিস্টুলা, চুলকানি, ফোলা ও ব্যথা সহ কোষ্ঠকাঠিন্যে কার্যকরী। এপ্লিকেটরের সাহায্যে সামান্য পরিমাণ মলম মলত্যাগের পর মলদ্বারের ভিতরে দৈনিক ১ থেকে ২ বার প্রয়োগ করতে হবে।
  • পাইল্স কিউর-Piles Cure (৩০ মিলি ড্রপ): মলদ্বারে চুলকানি, মলদ্বারে রক্তপড়া, মলদ্বারে ব্যথা সহ কোষ্ঠকাঠিন্যতায় কার্যকরী।
  • ফাইটোলক্কা বেড়ি-Phytolacca Barri (৫০টি ক্যাপসুল স্ট্রীপ প্যাকে): স্থুলতা, অতিরিক্ত ওজন এবং মেদ কমাতে কার্যকর।
  • নাক্স ভোমিকা-Nux Vomica (১০০ মিলি সিরাপ): পরিপাক ক্রিয়ার গোলযোগ, অম্লতা, অজীর্ণ, কোষ্ঠকাঠিন্য, আমাশয়, রক্তামশয়, প্লিহা এবং যকৃতের গোলযোগের কার্যকর।
  • মেজেরিয়াম-Mezereum (৩০ মিলি ড্রপ): চুলকানি, এলার্জিক প্রতিক্রিয়া এবং সকল প্রকার চর্মরোগে কার্যকর।
  • মাইগ্রেন কিউর-Migraine Cure (৩০ মিলি ড্রপ): মাইগ্রেন, মাথা ব্যথা, স্নায়ুবিক অবসাদ, ভয় এবং উদ্বেগে কার্যকর।
  • মেডিকাগো স্যাটাইভা-Medicago Sativa (১০০ মিলি এবং ৪৫০ মিলি সিরাপ): সাধারন দূর্বলতা, স্নায়ুবিক দূর্বলতা এবং হজমশক্তি বৃদ্ধিতে কার্যকর।
  • লিভারজিন-Livergin (১০০ মিলি এবং ৪৫০ মিলি সিরাপ): জন্ডিস, যকৃত বা লিভার বেড়ে যাওয়া সহ লিভারের পীড়ায় কার্যকর।
  • লিউকো কিউর-Leuco Cure (১০০ মিলি এবং ৪৫০ মিলি সিরাপ): গর্ভাবস্থায় আয়রন ও ক্যালসিয়ামের অভাব, সকল ধরনের শ্বেতপ্রদর এবং জরায়ু দূর্বলতায় কার্যকর।
  • কালমেঘ-Kalmegh (১৫ মিলি এবং ৩০ মিলি ড্রপ): শিশুদের যকৃতের প্রদাহ, কোষ্ঠকাঠিন্য, অম্লত্ব এবং অজীর্ণে কার্যকর।
  • জনোসিয়া অশোকা-Jonosia Asoka (১০০ মিলি সিরাপ): অনিয়মিত ঋতুস্রাব, জরায়ুর দূর্বলতা এবং বন্ধাত্ব দূর করে।
  • জাষ্টিশিয়া আধাটোডা-Justicia Adhatoda (১৫ মিলি এবং ৩০ মিলি ড্রপ): সর্দি, কাশি, নিউমোনিয়া, ব্রঙ্কাইটিস এবং হুপিং কাশিতে কার্যকর।
  • জন্ডিস কিউর-Jundice Cure (৩০ মিলি ড্রপ): জন্ডিস, হেপাটাইসিস-বি, অরুচি, প্রস্রাব হলুদ এবং লিভারের সমস্যায় কার্যকর।
  • হাইপারটেন-Hyperten (৩০ মিলি ড্রপ): উচ্চ রক্তচাপ, অনিদ্রা, দ্রুত হৃদস্পন্দন এবং হৃদপিন্ডের সমস্যায় কার্যকর।
  • হোলারহেনা এন্টিডিসেন্টরিকা-Holarrhena Antidysenterica (১০০ মিলি সিরাপ): নতুন ও পুরাতন আমাশয়ে কার্যকর।
  • জিমনেমা সিলভেসট্রি-Gymnema Sylvestre (১০০ মিলি সিরাপ): ডায়াবেটিস, শরীরের ওজন কমে যাওয়া, ঘন ঘন পিপাসা এবং ঘন ঘন প্রস্রাব সমস্যায় কার্যকর।
  • জিংসেন পাওয়ার-Ginseng Power (১০০ মিলি এবং ৪৫০ মিলি সিরাপ): যৌন দূর্বলতা, যৌন অক্ষমতা, শারিরীক দূর্বলতা, ধ্বজভঙ্গ, দ্রুত বীর্যপাত, বিষন্নতা, মানসিক চাপ, অবসাদ, স্নায়বিক দূর্বলতা, লিভারের কার্যক্ষমতা এবং পরিপাকতন্ত্রের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধিতে কার্যকর।

আজকের আলোচনা এখানেই শেষ করলাম। আশা করি, বুঝতে পেরেছেন। নতুন কোনো স্বাস্থ্য টিপস নিয়ে হাজির হবো অন্য দিন। সবাই সুস্থ্য, ‍সুন্দর ও ভালো থাকুন। নিজের প্রতি যত্নবান হউন এবং সাবধানে থাকুন।

এই পোস্টটি যদি আপনার ভালো লাগে এবং প্রয়োজনীয় মনে হয় তবে অনুগ্রহ করে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না যেন।

 

[বিশেষ দ্রষ্টব্য: এই ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্যগুলো কেবল স্বাস্থ্য সেবা সম্বন্ধে জ্ঞান আহরণের জন্য। অনুগ্রহ করে ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে ওষুধ সেবন করুন। ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া ওষুধ সেবনে আপনার শারীরিক বা মানসিক ক্ষতি হতে পারে। প্রয়োজনে, আমাদের সহযোগিতা নিন। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।]

অ্যাডমিনঃ

আপনাদের সাথে রয়েছি আমি মোঃ আজগর আলী। ছোট বেলা থেকেই কম্পিউটারের প্রতি খুব আগ্রহ ছিল। মানুষের সেবা করারও খুব ইচ্ছে। আর তাই গড়ে তুলেছি স্বাস্থ্য সেবা বিষয়ক ওয়েবসাইট সানরাইজ৭১। আশা করছি, আপনারা নিয়মিত এই ওয়েবসাইট ভিজিট করবেন এবং ই-স্বাস্থ্য সেবা গ্রহণ করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     আরও পড়ুন:

সাম্প্রতিক পোস্টসমুহ

আজকের দিন-তারিখ

  • সোমবার (রাত ১১:৩১)
  • ২৩শে নভেম্বর ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
  • ৭ই রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরি
  • ৮ই অগ্রহায়ণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ (হেমন্তকাল)