আজ রবিবার,৭ই অগ্রহায়ণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ,২২শে নভেম্বর ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

www.sunrise71.com

টিউমার (আব/অর্বুদ) এর লক্ষন ও হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা

টিউমারের চিকিৎসা


 

টিউমার কখনো কখনো সাধারন থেকে বড় সমস্যায় পরিণত হয়। টিউমার শরীরের যেকোন স্থানে হতে পারে। তবে, ব্রেন টিউমার, ব্রেষ্ট টিউমার সহ শরীরের ভেতরে যে টিউমারগুলো হয় সেগুলোতে একটু ভয় থাকে বেশি। প্রাথমিক লক্ষণ দেখা দেয়া মাত্রই যদি হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা শুরু করা যায় তবে টিউমার থেকে পুরোপুুরি মুক্তি পাওয়া সম্ভব। সানরাইজ৭১ এ আজ এ নিয়ে থাকছে বিস্তারিত।

 

টিউমার চিকিৎসায় ব্যবহৃত ওষুধসমুহঃ Thuja, Causticum, Phytolocca, Antim Crud, Calcarea Carb, Arnica Mont, Graphyties, Calcarea Flour, Conium, Sanguinaria, Stafisagria, Calcarea Sulph, Kali Hydro etc.

ওষুধ যেভাবে খাবেনঃ পানি ওষুধ হলে ১ ফোঁটা করে আর বড়ি হলে ৩/৪ টি বড়ি দিনে ৩/৪ বার করে খেতে হবে। তবে এক ওষুধে কাজ না হলে পরবর্তী শক্তির ওষুধ খেতে হবে।

টিউমারের বিস্তারিত বিবরণ ও লক্ষণঃ ইহা দুই প্রকার। যথাঃ (১) মৃদু প্রকৃতির টিউমার, (২) ভীষণ প্রকৃতির টিউমার।

 

চিকিৎসাঃ

১। থুজাঃ সাইকোসিস দোষগ্রস্ত ব্যক্তিগণের জরায়ু, অস্থি, চর্ম ও অন্ত্রাদি যে কোন স্থানে অর্বুদ বা টিউমার কঠিন কাঁটা কাঁটা একটি বড় টিউমার এর উপর ছোট ছোট আঁচিলের ন্যায় বহু সংখ্যক উদ্ভেদ। কোমল টিউমার এ থুজা প্রয়োগে উপকার অবশ্যই হবে। তবে এই ওষুধের উচ্চ শক্তি প্রয়োগ করতে হবে।

২। কোনিয়ামঃ (ব্যবহৃত শক্তি: ৩০-২০০) কঠিন টিউমার, স্ত্রীলোকদের বয়োঃসন্ধিকালে জরায়ুর টিউমার, বৃদ্ধদের স্কন্ধেদেশে ও পৃষ্ঠদেশে টিউমার এবং মূত্রাশয় গ্রন্থি ও অন্ডকোষের টিউমার এ ইহা উপকারী। আর একটি লক্ষণ- যদি কোন কিছুর দ্বারা আঘাতের কারণে টিউমার হয় এবং তাতে বেদনা থাকলে কোনিয়াম ওষুধ প্রয়োগে উপকার হবে ইনশাআল্লাহ। উদরের মধ্যে যদি টিউমার হয় এবং তাতে যদি ছুড়ি দিয়ে কাটার মতো বেদনা হলে এবং যদি সুপারীর মতো শক্ত হয় তবে কোনিয়াম এ উপকার হবে নিশ্চিত।

৩। কষ্টিকামঃ কষ্টিকামের টিউমার নিরেট আকার ক্ষুদ্র ও থেবড়া কিংবা সূচাল হয়। এটা সাধারনতঃ চোখের পাতায়, নাকের ডগায়, হাতের আঙুলে ও নখের ধারে হয়। এই আকৃতির টিউমার হলে অবশ্যই কষ্টিকাম প্রয়োগ করলে উপকার হবে।

৪। ব্যারাইটা কার্বঃ গলা ও ঘাড়ে নরম থলথলে মেদপূর্ণ টিউমার, গলায় বা ঘাড়ের পশ্চাতে টিউমার, গ্লান্ড ফুলে যাওয়া সহ এই সব ক্ষেত্রে ব্যারাইটা কার্ব প্রয়োগ করলে উপকার হয়।

৫। ফাইটোলক্কাঃ যেসব টিউমার হলে খুব ব্যথা হয় সেগুলোর ক্ষেত্রে ফাইটোলক্কা প্রয়োগ করলে উপকার হবে।

৬। ক্যালক্যারিয়া ফ্লোরঃ নবাগত শিশুদের মাথায় তুলতুলে নরম টিউমার, এর রং যদি লাল ও নীল বর্ণ হয় তাহলে নিঃসন্দেহে ক্যালক্যারিয়া ফ্লোর প্রয়োগে উপকার হবে। ক্রমশক্তিগুলো হলোঃ ৬, ১২, ৩০, ২০০ বা ৩x, ৬x, ৩০।

৭। এন্টিম ক্রুডঃ রোগীর জিহ্বায় সাদা লেপ, যেন দুধ মাখানো আছে। আর পূর্ণ বয়স্কগণ সর্বদাই মনমরা, দুঃখিত ও কষ্টবোধ অনুভব করেন, কথায় কথায় কান্না করে ফেলেন, ছেলে মেয়ে শীঘ্র শীঘ্র মোটা হয় – এমন লক্ষণজনিত রোগীর ক্ষেত্রে টিউমার বা আঁচিল হলে তার মাথা হবে সূচাল, চিকন। এই ক্ষেত্রে এন্টিম ক্রুড প্রয়োগে উপকার হয়।

৮। আর্নিকা মন্টঃ সাধারনতঃ চক্ষুর পাতায় টিউমার, আঞ্জিনা/আঁচিল হলে আর্নিকা মন্ট সহ গ্রাফাইটিস, স্ট্যাফিসেগ্রিয়া, ক্যালক্যারিয়া ফ্লোর ওষুধসমুহ ব্যবহার করা যায়।

 

আজকের আলোচনা এ পর্যন্ত-ই। দেখা হবে আগামী দিন অন্য কোন স্বাস্থ্য সেবা বিষয়ক লেখা নিয়ে। লেখাটি কেমন লেগেছে তা আপনি কমেন্ট করে জানাতে পারেন। সবসময় সবার সুস্থ্যতা কামনা করছি। ভালো থাকুন, ‍সুস্থ্য ও সুন্দর থাকুন এবং পরিবারের সবাইকে নিয়ে সুখে থাকুন।

এই লেখাটি আপনার কাছে প্রয়োজনীয় মনে হলে এবং ভালো লেগে থাকলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না যেনও।

 

[বিশেষ দ্রষ্টব্য: এই ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্যগুলো কেবল স্বাস্থ্য সেবা সম্বন্ধে জ্ঞান আহরণের জন্য। অনুগ্রহ করে ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে ওষুধ সেবন করুন। ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া ওষুধ সেবনে আপনার শারীরিক বা মানসিক ক্ষতি হতে পারে। প্রয়োজনে, আমাদের সহযোগিতা নিন। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।]

অ্যাডমিনঃ

আপনাদের সাথে রয়েছি আমি মোঃ আজগর আলী। ছোট বেলা থেকেই কম্পিউটারের প্রতি খুব আগ্রহ ছিল। মানুষের সেবা করারও খুব ইচ্ছে। আর তাই গড়ে তুলেছি স্বাস্থ্য সেবা বিষয়ক ওয়েবসাইট সানরাইজ৭১। আশা করছি, আপনারা নিয়মিত এই ওয়েবসাইট ভিজিট করবেন এবং ই-স্বাস্থ্য সেবা গ্রহণ করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     আরও পড়ুন:

সাম্প্রতিক পোস্টসমুহ

আজকের দিন-তারিখ

  • রবিবার (রাত ৯:৪০)
  • ২২শে নভেম্বর ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
  • ৬ই রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরি
  • ৭ই অগ্রহায়ণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ (হেমন্তকাল)